সাম্প্রতিক :
মুখে বলবে- নারী স্বাধীনতা, কিন্তু করবে নারী দিয়ে ব্যবসা। একটি পেঁপের মূল্য ১ লক্ষ ৬৯ হাজার টাকা! করোনায় আতংক নয়! সামান্য কয়েক টাকায় করোনার চিকিৎসা! দাবী বাংলাদেশী গবেষকের।। একটি মানবিক আবেদন – মনিরুল ইসলাম উপহারের নামে প্রতারনা! সতর্ক না হলে সর্বস্ব হারাবেন!! মানবিক সাহায্য চেয়ে ফেসবুকে আবেদন। মে মাসে ১২ তারিখে সুরাইয়া নামক নক্ষত্রের উদয় ও করোনার বিদায় একজন সৎ সঙ্গী আপনাকে জাহান্নাম থেকে বাঁচাতে পারে। যদি আপনি তাকে অনুসরন করেন। ভাইরাল করলে এটা করুন! কাজে আসতে পারে। সিলেট ওসমানি হাসপাতাল! দরকার হলে মাটি খেয়ে পড়ে থাকুন! তবুও ঘরেই থাকুন। কেন বলছি, হিসাবটা মিলিয়ে দেখুন ||

একটি ফর্মুলা ই পাল্টে দিতে পারে সমাজের চিত্র

একটি ফর্মুলা ই পাল্টে দিতে দিতে পারে সমাজের চিত্র

আবু সালেহ মোঃ আলমগীরঃ আসসলামু আলাইকুম।
আজ আমি আপনাদেরকে একটা ফর্মুলার কথা বলছি।
আমাদের সমাজে এমন কিছু পরিবার দেখা যায়, যারা নিরবে কাঁদে। কারন পরিবারে অনেক সদস্য,  চাহিদা অনুযায়ী রোজগারে লোক বলতে একজন। তা ও আবার আয় বলতে কিছুই নাই, শরীর স্বাস্থ্য সবসময় ভাল থাকেনা।
অবশ্য এটা সবার চোখে পড়েনা,  শুধু আন্তরীকতা দিয়ে তাকালেই দেখা যায়,  লোকটা কিভাবে চলছে!
তার তো একটা সংসার আছে,  চাল, ডাল, কাপড় চোপড়, ঔষধপত্র কত কিছুই না লাগে। অথচ সে কাজ করতে পারছেনা। বা যা রুজি হয়,  তাতে এগুলো কাভারেজ করা যায়না।

নিজের কথা ভাবুন!  কেমন হত? যদি ঐ ব্যাক্তির স্থলে আপনি হতেন।
মহান আল্লাহর শুকরিয়া স্বরুপ,  তার প্রতিনিধিত্ব করুন।
একটা টিম গঠন করুন, এবং সবাইকে আপনার উদ্দেশ্য শেয়ার করুন। গঠন করে নিতে পারেন মানবিক সংস্থা,  নাম আপনার ইচ্ছানুযায়ী হতে পারে। আমরা সাজেশন করে থাকি “মানবতার ডাক।
আগামী শুক্রবার থেকে জুমার পর গ্রামে বের হয়ে যাবেন।
প্রত্যেক স্বচ্ছল পরিবারে গিয়ে বলবেন, আমরা একটি সংগঠন করেছি যার নাম “মানবতার ডাক”।
আমাদের সংগঠনে আপনাদের সহযোগীতা চাই। যে যত পারেন, প্রতি শুক্রবার আপনাদের কাছে আমরা আসবো,  আপনারা আমাদের এই প্রচেষ্টার সহযোগী হিসাবে থাকবেন।

আরেকটু সহজ হবে যদি শুক্রবার জুমার খুতবার আগে একটু আলোচনা করে নিতে পারেন।

এতে ইমাম বা খতিবের সহযোগীতা নিতে পারেন। চাইলে ইমামকে এই সংগঠনের মোতাওয়াল্লী বানাতে পারেন। কয়েকজন সাদামনের মুরুব্বীগনকে উপদেষ্টা বানাতে পারেন।

যাক, এভাবে কয়েক সপ্তাহ কাজ করলে মোটা মোটি একটা তহবিল হয়ে যাবে। কারন প্রতি শুক্রবার  এলাকা বুঝে প্রায় – ১/২ হাজার টাকা সংগ্রহ হতে পারে।
এবার সংগৃহীত তহবীল কিভাবে ব্যয় করবেন?

  1. ব্যাক্তি বুঝে একটা চায়ের দোকান,  অথবা কাচাঁ সবজির দোকান, অথবা অল্প পুজির মধ্যে একটা দোকান দিয়ে দিতে পারেন। যেখানে ১২-১৫ হাজার টাকা হলেই সম্ভব।
  2. একটা রিক্সা কিনে দিতে পারেন।
  3. কারো বই বা স্কুলে ফি পরিশোধ করে দিতে পারেন।
  4. দুঃস্থ কারো ঔষধ কিনে দিতে পারেন।
  5. অতি দরিদ্র কোনো গর্ভবতি মহিলা হাসপাতালে যাওয়ার ব্যাবস্থা করে দিতে পারেন।
  6. কাউকে একটি ভ্যান ও কিছু হরেকরকম কাপড় (হকার আইটেম) কিনে দিয়ে ব্যবসা জুরিয়ে দিতে পারেন।
  7. কাউকে একটি ভ্যান ও কিছু হরেকরকম কাপড় (হকার আইটেম) কিনে দিয়ে ব্যবসা জুরিয়ে দিতে পারেন।
  8. গরমকালে শরবতের ব্যবসার সরঞ্জাম কিনে দিতে পারেন।
  9. হেটে হেটে চা বিক্রির জন্য  (কোন বাজারে হতে হবে) একটি বড় থার্মোফ্লাক্স কিনে দিতে পারেন।
  10. আরো অনেক আছে,  শীতকালে পিঠা, গরমে ডাব, সবসময় ফল বা মৌসুমী ফল, যে কোনো একটি ব্যবসা করার মত
  11. পুজিঁ দিয়ে দিলে হয়ত ঐ পরিবারটা স্বাচ্ছন্দে জীবন যাপন করতে সক্ষম হয়ে যেতে পারে। 

 আর আপনারা এর নায়ক হয়ে যাবেন, মহান আল্লাহর নিকট।
কেয়ামতের দিন এটাও হয়ত নাযাতের উচিলা হতে পারে।
এই পোস্ট সকলকে জানিয়ে দেয়াও আমাদের দায়ীত্ব।
তাই আপনিও শেয়ার করতে পারেন, আপনার টাইমলাইনে। অথবা কোন গ্রুপে।
আল্লাহ হাফেজ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − two =




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মানবতার ডাক - ২০২০
Development By Eliyas Ahmed