মাহমুদাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

মাহমুদাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

গাইবান্ধার বোয়ালী ইউনিয়নের মেধাবী
শিক্ষার্থী, মাহমুদাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন।
গাইবান্ধা সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের, ১ নং ওয়ার্ডের উত্তর ফলিয়া পুলবন্দি এলাকার, মিঠু মিয়ার স্কুল পড়ুয়া মেধাবী কন্যা মাহমুদা আক্তার (১৬)।

ছোটবেলা থেকে হাত-পা খিচুনী রোগে ভুগছে। ক্লাস ওয়ান থেকে ৭ম শ্রেণী পর্যন্ত এক রোলের মেধাবী মাহমুদা আক্তার, খেলাধুলাতেও জেলা পর্যায়ে বেশ কয়েকটি পুরস্কার অর্জন করে। কিন্তু বয়স বাড়ার সাথে সাথে মাহমুদার হাত-পায়ের খিচুনী এবং মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়া রোগটির প্রভাবও বেড়ে যায়। ফলে দক্ষিন কামারজানী হাই স্কুলে পড়তে যাওয়া বন্ধ রয়েছে। মেধাবী এই মেয়েটিকে সুস্থ করার আশায় তার পিতা-মাতার সহায় সম্বল, সোনার গয়ণাসহ সবটুকুও বিক্রি করে বর্তমানে নিঃস্ব হয়েছেন।
এমতাবস্থায় চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া প্রায় অসম্ভব হয়ে গেছে। এর মধ্যে গত ১৫ এপ্রিল মাহমুদাকে গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে দুই দিন থাকার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহমুদাকে রংপুর অথবা ঢাকায় নিয়ে উন্নত চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ প্রদান করেন।

মাহমুদার পিতা মিঠু মিয়া জানান, তার মেয়ের চিকিৎসা করাতে গিয়ে তিনি বর্তমানে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। প্রায় ১২ দিন ধরে মাহমুদা কোন কিছুই খেতে পারছে না। দিনে ৩/৪ বার করে খিচুনী ওঠায় মাহমুদার মুখের জিহ্বা কুকড়ে গিয়ে কথা বলার শক্তিও হারিয়ে ফেলেছে। অত্যন্ত মেধাবী ফুটফুটে ফুলের মতো নিষ্পাপ মাহমুদাকে বাঁচাতে, তার পিতা মিঠু মিয়া সমাজের বিত্তবান এবং দয়াবান মানুষদের নিকট, সাহায্যের হাত পেতেছেন।

(বিকাশ এজেন্ট) ০১৭১৭৪৬১০৫৫ নাম্বারে আর্থিক সহযোগিতা পাঠাতে পারবেন।
বিঃদ্রঃ – সাহায্য পাঠানোর আগে, অন্তত একবার যাচাই করে নিবেন।
কারন, মানবতার ডাক সরাসরী কোন সাহায্য প্রার্থীর সাথে যোগাযোগ করেনা। তাই দাতাগন একটু খোঁজ নিয়ে দান করবেন। দান – নিশ্চই একটা উত্তম কাজ। তবে, তা যেন প্রকৃত গ্রহিতার হাতে পৌছায়, তাহলেই দান স্বার্থক হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মানবতার ডাক - ২০২০
Development By Eliyas Ahmed