সাম্প্রতিক :
মুখে বলবে- নারী স্বাধীনতা, কিন্তু করবে নারী দিয়ে ব্যবসা। একটি পেঁপের মূল্য ১ লক্ষ ৬৯ হাজার টাকা! করোনায় আতংক নয়! সামান্য কয়েক টাকায় করোনার চিকিৎসা! দাবী বাংলাদেশী গবেষকের।। একটি মানবিক আবেদন – মনিরুল ইসলাম উপহারের নামে প্রতারনা! সতর্ক না হলে সর্বস্ব হারাবেন!! মানবিক সাহায্য চেয়ে ফেসবুকে আবেদন। মে মাসে ১২ তারিখে সুরাইয়া নামক নক্ষত্রের উদয় ও করোনার বিদায় একজন সৎ সঙ্গী আপনাকে জাহান্নাম থেকে বাঁচাতে পারে। যদি আপনি তাকে অনুসরন করেন। ভাইরাল করলে এটা করুন! কাজে আসতে পারে। সিলেট ওসমানি হাসপাতাল! দরকার হলে মাটি খেয়ে পড়ে থাকুন! তবুও ঘরেই থাকুন। কেন বলছি, হিসাবটা মিলিয়ে দেখুন ||
পল্লী চিকিৎসকরা জাতির দূর্দিনে পাশে থেকে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করল!

পল্লী চিকিৎসকরা জাতির দূর্দিনে পাশে থেকে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করল!

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত মাদারস্ ফাস্ট এইড ইনস্টিটিউট মেডিকেল সার্ভিসেস লিঃ এর চেয়ারম্যান ডাঃ মামুনুর রশীদ এর পরামর্শে ও বাংলাদেশ পল্লী চিকিৎসক সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি ডাঃ মোঃ সবুজ আলীর নির্দেশনায় শমশেরনগর শাখার পক্ষ থেকে আজ সকাল ১০ ঘঠিকার সময় থেকে দুপুর ২ ঘঠিকা পর্যন্ত ধারাবহিক ফ্রী চিকিৎসা ও বিনামূল্যে ঔষধ বিতরনের ৩য় দিনে শমশেরনগর ইউনিয়নের রেলওয়ে ষ্টেশনের পার্শ্ববর্তি এলাকা, আব্দুল মছব্বীর রোড, দৌলতপুর ও বাদাইরদেউল সহ বেশ কয়েক জায়গায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে ১০০ শত পরিবারের মধ্যে ফ্রী চিকিৎসা সেবা ও বিনামূল্যে ঔষধ বিতরণ করা হয়।

প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ডাঃ মোঃ কামরুজ্জামান সিমুর নেতৃত্বে মেডিকেল টিমে অংশ গ্রহন করে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন কুলাউড়া পল্লী চিকিৎসক সমিতির সাধারন সম্পাদক ডাঃ মোঃ আহমদ আলী, কমলগঞ্জ উপজেলা পল্লী চিকিৎসক সমিতির সাধারন সম্পাদক ডাঃ মোঃ আব্দুস সালাম শমশেরনগর পল্লী চিকিৎসক সমিতির সহ সভাপতি ডাঃ চাম্পা লাল দে, সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ বিমল পাল, মেডিকেল স্টুডেন্ট আমিনুর রহমান, মোঃ গৌছ আলী। আরো উপস্থিত থেকে জনগনকে সতর্কমূলক পরামর্শ প্রদান করেন শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের হাফিজুল হক চৌধুরী স্বপন, গণ মাধ্যম কর্মী সাংবাদিক জয়নাল আবেদীন, শমশেরনগর বণিক কল্যান সমিতির সাধারন সম্পাদক আজিজুর রহমান মশাহিদ ও আজিজুর রহমান জনি। সরকারের স্বাস্থ্য নীতি মেনে চলার জন্য সবাইকে সচেতনা মূলক লিপলেট বিতরন করা হয়।

মাদারস্ ফাস্ট এইড ইনস্টিটিউট মেডিকেল সার্ভিসেস লিঃ শমশেরনগর শাখার পরিচালক ডাঃ কামরুজ্জামান সিমু বলেন আমাদের পল্লী চিকিৎসক সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি ডাঃ সবুজ আলী ও আমাদের প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান ডাঃ মোঃ মামুনুর রশীদ নির্দেশনায় আমরা দেশের এই দূর্যোগে সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জ্বর, সর্দি ও কাশির চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। যেহেতু দেশে সরকার লক ডাউন ঘোষনা করেছে তাই কেউ বাড়ী থেকে বের হচ্ছে না এবং সঠিক চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে না সেই জন্য আমরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করে যাচ্ছি। আতংক আর গুজবের কারনে মানুষ চিকিৎসকের কাছে বা হাসপাতালে যাচ্চে না আর সেই কারনে স্বাভাবিক জ্বর সর্দি কাশিতে আক্রান্ত অনেক মানুষ। করোনা মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি আমরা সারা দেশের ১ লক্ষ ৪০ হাজার পল্লী চিকিৎসক কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরো বলেন সামনের দিন গুলো আমাদের দেশের জন্য বিপদজনক হয়ে দাড়াতে পারে যদি আমরা সতর্ক না হই। আমাদের উচিৎ হলো সরকারের স্বাস্থ্য নীতি মেনে হোম কোয়ারান্টাইনে থাকা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + one =




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মানবতার ডাক - ২০২০
Development By Eliyas Ahmed